ইসলামে সমকামিতা নিয়ে যে শাস্তির বিধান হয়েছে

ইসলামে সমকামিতা নিয়ে অনেক ভাবে শাস্তির বিধান রয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে সমকামীর মানুষদের ধ্বংস করাই হল একমাত্র বিচার। যেখানে আল্লাহ্‌ নিজে মানুষকে সৃষ্টি করেছেন, সেখানে তিনি মানুষদের ধ্বংস করেছেন। আল্লাহ কি জানতেন না যে সেই মানুষগুলো ইচ্ছা করে সমকামী হয় নি? উনি যদি মানুষ সৃষ্টি করে থাকেন তাহলে সমকামকেও সৃষ্টি করেছেন । যদি টাই হয়ে থাকে তাহলে বিনা বিচারে উনি সেই মানুষগুলোকে কেন হত্যা করলেন? যদি আল্লাহ সকল মানুষকে সমান ভহাবে ভালবাসেন তাহলে সমকামী মানুষদেরকেও ভালবাসেন নিশ্চয়ই? তাহলে ইসলামি ধর্মগ্রন্থে কেন এই শাস্তির বিধান? 

আল্লাহ তাআলা ইরশাদ করেছেন, স্মরণ কর লুতের কথা, তিনি তাঁর কওমকে বলেছিলেন, তোমরা কেন অশ্লীল কাজ করছ? অথচ এর পরিণতির কথা তোমরা অবগত আছ! তোমরা কি কামতৃপ্তির জন্য নারীদের ছেড়ে পুরুষের উপগত হবে? তোমরা তো এক বর্বর সম্প্রদায়। উত্তরে তাঁর কওম শুধু এ কথাটিই বললো, লূত পরিবারকে তোমাদের জনপদ থেকে বের করে দাও। এরা তো এমন লোক যারা শুধু পাক পবিত্র সাজতে চায়। অতঃপর তাঁকে ও তাঁর পরিবারবর্গকে উদ্ধার করলাম তাঁর স্ত্রী ছাড়া। কেননা, তার জন্যে ধ্বংসপ্রাপ্তদের ভাগ্যই নির্ধারিত করেছিলাম। ( ২৭.৫৪-৫৭)

অন্যত্র ইরশাদ হয়েছে সারা জাহানের মানুষের মধ্যে তোমরাই কি পুরূষদের সাথে কুকর্ম কর? এবং তোমাদের পালনকর্তা তোমাদের জন্য সঙ্গিনী হিসেবে যাদের সৃষ্টি করেছেন, তাদেরকে বর্জন কর? বরং তোমরা সীমালঙ্ঘনকারী সম্প্রদায়। (শুআরা ২৬.১৬৫-১৬৬)

এমনিভাবে হাদীস শরীফে এরশাদ হয়েছে, ইবনে আব্বাস রা.থেকে রাসুল সা. বলেছেন, তোমরা যদি কাউকে পাও যে লুতের সম্প্রদায় যা করতো তা করছে, তবে হত্যা করো যে করছে তাঁকে আর যাকে করা হচ্ছে তাকেও। (আবু দাউদ ৩৮.৪৪৪৭)

হযরত জাবির (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুল (সা.) বলেছেন, আমি আমার কওমের জন্য সবচেয়ে বেশি যে জিনিসটা আশঙ্কা করি সেটা হল লুতের কওম যা করত সেটা যদি কেউ করে (তিরমিজি, ১৪৫৭) সমকামীদের শাস্তি : হযরত ইবনে আব্বাস রা. বলেন, অবিবাহিত কাউকে যদি সমকামিতায় পাওয়া যায় তাহলে তাঁকে পাথর মেরে হত্যা করতে হবে। (আবু দাউদ, ৩৮.৪৪৪৮ ) যে কাউকে লুতের কওমের মতো করতে দেখলে যে দিচ্ছে আর যে পাচ্ছে দুজনকেই হত্যা কর।(তিরমিজি ১.১৫২) হযরত ইবনে আব্বাস (রা) থেকে বর্ণিত, রাসুল (সা.) বলেছেন, অভিশপ্ত সে যে কিনা কোন পশুর সাথে সেক্স করে, আর অভিশপ্ত সে যে কিনা সেটা করে যা লুতের সম্প্রদায় করত। (আহমাদ:১৮৭৮) হযরত ইবনে আব্বাস (রা.) বলেন, আলী (রা.) তাঁর সময়ে ২ জন সমকামীকে পুড়িয়ে দেন। আর আবু বকর (রা.) তাদের উপর দেয়াল ধ্বসিয়ে দেন। (মিশকাত শরীফ)

যদি এই হয় শাস্তির বিধান , তাহলে আমাদের কেন উনি এভাবে সৃষ্টি করে পৃথিবীতে পাঠালেন? ইচ্ছা করে কেউ তো সমকামী হয় না। আমাদের মধ্যে সমকামের প্রবৃত্তি প্রাকৃতিক ভাবেই তৈরি হয়। বিজ্ঞান এই বিষয়ে সকল গবেষণায় বলেছে, সমকাম অথবা সমকামী মানুষ জিনগত কারণেই সমকামী হয়ে থাকে। এই গবেষণা পরিক্ষিত এবং এ এক চিরন্তন  সত্য। সমকামী মানুষ সাধারণ মানুষের মতোই স্বাভাবিক জীবন যাপন করে। আর সকল মানুষের মতো এই সমাজে বাঁচার অধিকার রাখে। তাহলে আমি কি বলব আল্লাহ আমাদের সাথে অবিচার করছেন? আল্লাহ যদি সমস্ত সৃষ্টিকে ভালবাসেন, তাহলে আমাকে ভালবাসেন। তাহলে সমকামিতা নিয়ে ইসলাম যা বলে তা কি মিথ্যা?     

Sultanul Arefin Siam

Read Previous

পর্দা শরীর বাঁচায় নাকি প্রলোভনের ভয়াবহ এক ফাঁদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.