৭২ হুরপরির স্বপ্ন এবং জঙ্গিবাদ, পর্ব -১

জঙ্গিবাদের সুড়ুতে যে ৭২ হুরপরি নিয়ে ইসলামিক ধর্ম গ্রন্থে যেসকল বিষয় বিশেষ ভাবে উল্লেখযোগ্য সেগুলো পড়ে যানতে পারলাম , এসকল আজগুবি অ বানোয়াট কথা বলে কোমল মতি শিশু এবং কিশোর বালকদের ট্রেনিং দেয়া হয়। লোভ দেখান হয়। আত্মঘাতী বা জঙ্গি হামলার পর অর্থাৎ মৃত্যুর পড় তাঁদের সাথে কি হবে। এবং পৃথিবীতে যত পাপ কাজ করা হয়েছে তার ক্ষমা প্রদান করে তাঁদের কয়ে জান্নাতবাসী করে, টাদেরকে রাজার হালে রাখার ব্যাবস্থা আগে থেকেই করা আছে। এবং সেই বিষয় সম্পর্কে ইসলামিক ধর্ম গ্রন্থে বিস্তারিত ভাবে লেখা আছে। সেগুলো কিরকম, আসুন জেনে নেই।

শাইখ জিবরীল হাদ্দাদ হলেন একজন প্রসিদ্ধ হাদিস বিশেষজ্ঞ (মুহাদ্দিস), যিনি শরিয়তের উপর বিশ্বের নেতৃস্থানীয় কর্তৃপক্ষের অন্যতম একজন ব্যক্তি হিসেবে স্বীকৃত। ২০০৯ সালে অনুষ্ঠিত একটি উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তাঁর নাম “বিশ্বের সবচাইতে প্রভাবশালী ৫০০ মুসলিমগণের” একটি তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিলো এবং তাঁকে “পাশ্চাত্যের ঐতিহ্যবাহী ইসলামের সর্বাপেক্ষা অবিমিশ্র কণ্ঠস্বরের অধিকারী” হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছিলো। ২০০৫ সালে তাঁর দ্বারা জারিকৃত ফতোয়া থেকে নিম্নোলিখিত তথ্যসমূহ সংগ্রহ করা হয়েছে।

“মহান আল্লাহর নিকট শহীদগণ মোট ছয়টি মর্যাদার অধিকারী হবেন। যথা:

১। তাঁর শরীর থেকে প্রথম রক্তক্ষরণ শুরু হওয়ার সাথে সাথেই তাঁকে ক্ষমা করে দেওয়া হবে।

২। বেহেশতে তাঁর জন্যে নির্ধারিত স্থান টি প্রদর্শন করানো হবে এবং সকল ধরনের কবর আযাব থেকে তাঁকে সুরক্ষিত করা হবে।

৩। আখিরাতে পুনরুত্থানের দিনে তথা সবচাইতে মহাভীতির দিনে তাঁকে নিরাপদে রাখা হবে।

৪। তাঁর মস্তকে সম্মানের তাজ পরানো হবে; যার এক একটি ইয়াকুত পাথর দুনিয়া এবং এর অভ্যন্তরস্থ যে কোন কিছু অপেক্ষা অধিক মুল্যবান হবে।

৫। বেহেশতে তাঁকে ৭২ জন আয়তলোচনা হুরীর সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ করা হবে। এবং

৬। তাঁর সত্তরজন নিকটাত্মীয়ের জন্যে তাঁর সুপারিশ কবুল করা হবে।”

মুসনাদ আহমদ ইবনে হাম্বল, সুনানে আল-তিরমিজী

মুসনাদ আহমদ ইবনে হাম্বল, সুনানে আল-তিরমিজী খণ্ড ৩, বহি ২০, হাদিস ১৬৬৩

আবু সাইদ খুদরী (রাঃ) হতে বর্ণিত, রাসুলুল্লাহ (সাঃ) বলেছেন, জান্নাতীগণের মধ্যে সর্বনিম্ন মর্যাদাসম্পন্ন ব্যক্তিও পাবেন আশি হাজার ভৃত্য এবং বাহাত্তর জন সঙ্গিনী। মুক্তা, ইয়াকুত এবং সবুজাভ ও নিলাভ বর্ণের মুল্যবান পাথর দ্বারা অলংকৃত এমন একটি বিশাল প্রাসাদ উক্ত ব্যক্তির জন্যে নির্মাণ করা হবে, যেটি আল-জাবিয়া থেকে সান’আ এর মধ্যবর্তী দূরত্ব এর সমপরিমান দূরত্ব পর্যন্ত বিস্তৃত হবে। ”

সুনানে আল-তিরমিজী খণ্ড ৪, অধ্যায় ২১, হাদিস ২৬৮৭

সুনানে আল-তিরমিজী খণ্ড ৪, বহি ১২, হাদিস ২৫৬২

আবু উমামা (রহঃ) হতে বর্ণিত, রসুলুল্লাহ (সাঃ) বলেছেন, বেহেশতে প্রবেশকারী ব্যক্তিগণের মধ্যে এমন কোন ব্যক্তি থাকবেন না, যাকে মহান আল্লাহ তায়ালা ৭২ জন নারীর সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ করবেন না। উক্ত ৭২ জনের মধ্যে দু’জন হবেন আয়তলোচনা বেহেশতী হুরি আর ৭০ জন হবেন জাহান্নামীদের থেকে ওয়ারিসী সুত্রে প্রাপ্ত। উক্ত নারীগণের আকর্ষণ কখনোই নিঃশেষ হবে না এবং পুরুষদের যৌনাকাঙ্ক্ষা ও কখনোই হ্রাস পাবে না।”

ইবনে মাজাহ, আল বা’থ ওয়াল নুশুর এ আল বায়হাকী এবং কামিল এ ইবনে আ’দি

বঙ্গানুবাদ: আনাস (রহঃ) হতে বর্ণিত, রসুলুল্লাহ (সাঃ) বলেছেন, আল্লাহর মনোনীত বান্দাদেরকে বেহেশতে ৭০ জন নারীর সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ করা হবে। কেউ একজন জিজ্ঞাসা করলেন, হে আল্লাহর রসুল, উক্ত ব্যক্তি কি এরুপ সহ্য করতে সক্ষম হবেন? তিনি উত্তর দিলেন, তাঁকে একশত জন পুরুষের সমপরিমান শক্তি প্রদান করা হবে।”

সিফাত আল-জান্নাহ, দু’আফা’ এ আল-উকাইলি এবং আবু বকর আল-বাজার এর মুসনাদ

পর্ব ১ বেশি লম্বা করতে চাইনা। পরের পর্বে, এরকম আরও কিছু ব্যাখ্যা নিয়ে আপনাদের সামনে তুলে ধরবো। এসকল বিষয় গুলো জঙ্গিবাদের প্রসারে কত ভয়াবহ ভূমিকা পালন করে এসকল বিষয় গুলো আপনারা সকলেই জানেন বা বোঝেন। এসকল বিষয়গুলো আমাদের মতো দেশে যেখানে সেক্স হয় লোকের অগোচরে, যা বল্যতে গেলে খোলাখুলি ভাবে সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ এক বিষয়, সেখানে ৭২ জন হুরপরি এক সাথে আপনার সাথে থাকবে, সেগুলো ভহেবেই তো জঙ্গিগুলোর মাথা খারাপ হয়ে যাবার কথা। এরা মানুষ মারবে না তো কি করবে? হোক সে নিরাপরাধ হোক সে বিধর্মী। এদেরকে বোঝালেও কি এরা বোঝে?

Sultanul Arefin Siam

সুলতানুল আরেফিন সিয়াম। ব্লগার, লেখক ও সমকামী অধিকার কর্মী। একই সাথে তিনি বয়েজ লাভ ওয়ার্ল্ড, এথিস্ট ইন বাংলাদেশ, এথিস্ট চ্যাপ্টার, ডেইলি এথিস্ট, সেক্যুলার বাংলাদেশ ও এলজিবিটি বাংলাদেশ নামক পাব্লিক ব্লগ ও ম্যাগাজিনগুলোর সাথে জড়িত রয়েছেন। তাছাড়া তাঁর ব্যক্তিগত ব্লগেও নিয়মিত লেখালেখি করে থাকেন।

Read Previous

অভিজিৎ, জুলহাস তোমাদের রক্ত শুকিয়ে মিশে গেছে মাটিতে

Read Next

৭২ হুরপরির স্বপ্ন এবং জঙ্গিবাদ, পর্ব -২

6 Comments

  • ধর্ম অন্যায় করে না, বরং অন্যায় থেকে বিরত থাকতে বলে। অন্যায় করে মানুষ। বিষয়টি বুঝবেন আশা করি।

  • মাদারচোদ, তুই আমার ধর্মকে সব সময় ছোট করার তালে থাকস। এইটার কারন কি?

  • চমৎকার পর্যবেক্ষন। ভালো লাগলো লেখাটি।

  • ইসলাম ধর্ম অবমাননা করলে তোর খুব ভালো লাগে নারে ? দেশে আয় তুই, তোর কল্লা কাইটা মসজিদের সামনে ঝুলাইয়া রাখমু।

  • কিসের সাথে কি মিলাচ্ছেন? ধর্ম খুবই সেন্সিটিভ একটা বিষয়।ধর্ম নিয়ে আজেবাজে কথা শুনলে সবারই খারাপ লাগে। তবে এ নিয়ে নিরীহ মানুষের উপর আক্রমণ করাটাও সমর্থন করি না কোনোভাবেই।

  • এইসব উগ্র মৌলবাদীদের মুখের উপর একেবারে চপেটাঘাত করেছেন ভাই। যদিও কোনো বোধোদয় হবে না এদের তবুও সান্ত্বনা, কেউ একজন তো চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিচ্ছে।প্রতিবাদ করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.